বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১২:৩০ অপরাহ্ন

স্মরণীয় সিরিজ জয় দক্ষিণ আফ্রিকার

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : আগস্ট ১, ২০২২

বাঁ-হাতি স্পিনার তাবরেইজ শামসির ঘূর্ণিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা। গতরাতে সিরিজ নির্ধারনী তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে প্রোটিয়ারা ৯০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ইংলিশদের। ২৪ রানে ৫ উইকেট নেন শামসি।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয় দক্ষিণ আফ্রিকার। ফলে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা। ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম টি-টোয়েন্টি ও ১৯৯৮ সালের পর সাদা বলের ক্রিকেটে প্রথম সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা।
১-১ সমতা নিয়ে সাউদাম্পটনে মুখোমুখি হয় দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড। টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংলিশরা। ইনিংসের তৃতীয় বলেই শুন্য হাতে বিদায় নেন কুইন্টন ডি কক। শুরুর ধাক্কা সামলে উঠেন আরেক ওপেনার রেজা হেনড্রিক্স ও আগের ম্যাচের নায়ক রিলি রোসৌ। ৩৫ বলে ৫৫ রানের জুটি গড়েন তারা। জুটিতে ১৮ বলে ৩১ রান তুলে বিদায় নেন রোসৌ। তৃতীয় উইকেটে আইডেন মার্করামের সাথে দলের বড় স্কোরের ভিত গড়েন হেনিড্রক্স। এই জুটিতেই টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ১০ম হাফ সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। ১৭তম ওভারে হেনড্রিক্সকে থামান ইংল্যান্ডের পেসার ক্রিস জর্ডান। ৯টি চারে ৫০ বলে ৭০ রান করেন হেনড্রিক্স। মার্করামের সাথে ৬১ বল খেলে ৮৭ রান দলকে এনে দেন তিনি। দলীয় ১৪২ রানে হেনড্রিক্সের বিদায়ের পর শেষ ২১ বলে ৪৯ রান পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। সেখানে বড় ভূমিকা ছিলো মার্করাম ও ডেভিড মিলারের। চতুর্থ উইকেটে ১৭ বলে ৪১ রান তুলেন তারা। ফলে ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৯১ রানের সংগ্রহ পায় দক্ষিণ আফ্রিকা।
৫টি চারে ৩৬ বলে অপরাজিত ৫১ রান করেন মার্করাম। ৯ বলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ২২ রানে আউট হন মিলার। ২টি চারে ৪ বল খেলে ৮ রান তুলেন ট্রিস্টান স্টাবস। ইংল্যান্ডের ডেভিড উইলি ৩ উইকেট শিকার করেন।
সিরিজ জিততে ১৯২ রানের টার্গেটে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিলো ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জেসন রয় ও অধিনায়ক জশ বাটলার। ২৩ বলে ২৮ রান করেছিলেন তারা। তবে ৩৩ রানের মধ্যে বিদায় নেন দুই ওপেনারই। রয় ১৭ ও বাটলার ১৪ রান করেন। মিডল-অর্ডার ব্যাটররাও বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন। ফলে ৬৫ রানে ৫ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। এ অবস্থায় বল হাতে জ¦লে উঠে ইংল্যান্ডকে হারের পথে ছিটকে দেন শামসি। মিডল-লোয়ার অর্ডার মিলিয়ে ইংল্যান্ডের পাঁচ ব্যাটারকে নিজের শিকার বানান তিনি। ৫৪ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মত পাঁচ উইকেট নিলেন শামসি। ২০ বল বাকি থাকতে ১০১ রানে গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৭ রান করেন বেয়ারস্টো। ম্যাচ সেরা হয়েছেন শামসি। সিরিজ সেরা হন হেনড্রিক্স।
টি-টোয়েন্টির আগে ইংল্যান্ডের সাথে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করেছিলো দক্ষিণ আফ্রিকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ