রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

যুবলীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : নভেম্বর ১১, ২০২১

আজ বৃহস্পতিবার আওয়ামী যুবলীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হলো নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে।

জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা এবং বনানী কবরস্থানে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনিসহ পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও ফাতেহা পাঠ এবং মোনাজাত করা হয়।

এছাড়া আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। এসব কর্মসূচির মধ্য দিয়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়। পাশাপাশি চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে জড়িতরা যেন যুবলীগে আসতে না পারে, সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকারও আহ্বান জানানো হয়।
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দেশ-বিদেশের প্রতিটি ইউনিটে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে সকাল সাড়ে ৮টায় ধানমন্ডির বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি এবং সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে বনানী কবরস্থানে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ শেখ ফজলুল হক মণিসহ ৭৫-এর ১৫ আগস্ট সব শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।
শ্রদ্ধা নিবেদনের পর ফাতেহা পাঠ এবং মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। বেলা ১১ টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা, ৩য় ধাপে আশ্রয় প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন ও ৬নং গ্যালারিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শহীদ শেখ ফজলুল হক মণির কর্মচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করা হয়।

সকালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার ৬ নং গ্যালারীতে চিত্রপ্রদর্শনীর উদ্বোধনের আগে চিত্রশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সভার উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও সমন্বয়ক আমির হোসেন আমু। ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান সংগঠনের সকল নেতাকর্মীদের জাতির পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করে এগিয়ে চলার আহবান জানান।
আমির হোসেন আমু বলেন, শেখ পরশের নেতৃত্বে যুবলীগ আরও বেশি শক্তিশালী হবে। তার মানবিক কর্মসূচি সফল হচ্ছে। করোনায় অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়েছে। আজকে আশ্রয় প্রকল্প উদ্বোধন, এরআগেও গৃহহীনদের ঘর দিয়েছে যুবলীগ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম। যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ পরশের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমার কিছুই পাওয়ার নাই। তোমার কিছুই চাওয়ার নাই। তুমি তোমার বাবার আদর্শকে অনুসরণ করো। বাবা যা চেয়েছিলেন, সেই স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়বে। সত্যের জয় হবেই। নিশ্চয়ই তুমি জয়ী হবে। চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে জড়িতরা যেন যুবলীগে আসতে না পারে, সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

অনুষ্ঠানে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেন, দেশের অবকাঠামো ও উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলোতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ হিসেবে যুবলীগের ভূমিকা রাখা দরকার। প্রয়োজনে দলের মধ্যেও যেকোনো দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করবে যুবলীগ। বঙ্গবন্ধুকন্যার জনপ্রিয়তা এবং রাজনৈতিক দূরদর্শিতার কারণে ১৩ বছর ধরে রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করছি। তার নেতৃত্বে আমরা উন্নয়নশীল দেশ হিসেবেও মর্যাদা পেয়েছি। এই নতুন বাস্তবতায় আমাদের দায়িত্ব ও ভূমিকা অনেক গুণ বেড়ে গেছে। ঐতিহাসিকভাবে যুবলীগ সবসময় বিভিন্ন অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ হিসেবে ভূমিকা রেখেছে।

এদিকে বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে দেশের প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ১০টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ‘শিখা চিরন্তন’ থেকে ধানমন্ডি ৩২ নম্বর পর্যন্ত যুবলীগের আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ