রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন

‘মহানবীকে (সা.) অবমাননার প্রতিবাদ’ করায় ভেঙে দেয়া হচ্ছে বাড়িঘর

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : জুন ১২, ২০২২

বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে অবমাননার জেরে ভারতের উত্তর প্রদেশে বিক্ষোভে অংশ নেয়ায় বিক্ষুব্ধদের বাড়িঘর বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, শনিবার দুই অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙার পর রোববারও উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজ এলাকায় শুক্রবারের সহিংসতায় জড়িত এক রাজনীতিকের বাড়ি ভেঙে ফেলতে শুরু করেছে প্রশাসন। এ সময় ব্যাপক সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতি দেখা যায় সেখানে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নুপূর শর্মাসহ উগ্রপন্থী কয়েকজন নেতা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তি করার জেরে শুক্রবার বিক্ষোভ করে উত্তর প্রদেশের মুসলিম সম্প্রদায়।

এদিকে প্রিয় নবীর (সা.) অপমান সইতে না পেরে প্রতিবাদ করায় বাড়ি ভেঙে দেয়ার এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। ভিডিওতে দেখা যায়, বুলডোজার দিয়ে প্রয়াগরাজের রাজনীতিবিদ জাভেদ মোহাম্মদের বাড়ির ফটক এবং বাইরের প্রাচীর ভেঙে ফেলা হচ্ছে।

ভিডিওতে আরও দেখা যায়, রাজনীতিবিদ জাভেদ মোহাম্মদের বাড়ির ভেতরে ঢুকে পড়েছেন পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা ও পৌর কর্তৃপক্ষের একটি দল। বাড়ির ভেতরের আসবাবপত্র এবং অন্যান্য সামগ্রী ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে আছে। পৌরসভার কর্মীরা বাড়ির ভেতর থেকে আসবাবপত্র বাইরে নিয়ে এসে সড়কের ওপর রাখছেন।

পৌর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, অবৈধভাবে বাড়ি নির্মাণ করার কারণেই নাকি এসব বাড়ি-ঘর ভাঙা হচ্ছে। কয়েকবার নাকি নোটিসও দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে তারা।

পুলিশের অভিযোগ, শুক্রবার প্রয়াগরাজে বিক্ষোভ-সহিংসতায় যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের অন্যতম ‘মূলহোতা’ রাজনীতিক জাভেদ। প্রয়াগরাজে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বিক্ষোভকারীদের ওপর নিপীড়ন চালায় যোগী রাজ্যের পুলিশ।

তখন বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে প্রতিহত করা শুরু করলে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ বাধে। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল এবং পাথর নিক্ষেপ করেন বিক্ষোভকারীরা। সেই সহিংস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৫ ঘণ্টারও বেশি সময় লাগে পুলিশের।

অবৈধভাবে বাড়ি নির্মাণ করা হয়েছে বলে জাভেদ মোহাম্মদের বাসভবনের বাইরে নোটিশ ঝুলিয়ে দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পৌরসভার কর্মীরা তা ভেঙে ফেলতে শুরু করেছেন। প্রয়াগরাজের এই রাজনীতিকের বাড়ির বাইরে নোটিশ টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে শনিবার রাতে।

এদিকে, শুক্রবারের বিক্ষোভ এবং সহিংসতায় জড়িত সন্দেহে উত্তর প্রদেশে এখন পর্যন্ত ৩ শতাধিক মানুষকে গ্রেপ্তার করেছে রাজ্য পুলিশ। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ পরিবেশ খারাপ করার চেষ্টাকারী তথা মহানবীর (সা.) অপমানের বিরেুদ্ধে প্রতিবাদকারীদের বিরুদ্ধে ‘কঠোর’ ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ