বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন

জার্মানির প্রধান কোচের দায়িত্বে বিশ্বকাপ জয়ী ক্লোসা

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : জুন ১৮, ২০২২

বুট জোড়া তুলে রাখার আগে প্রতিপক্ষে রক্ষণ চূর্ণবিচুর্ণ করতে সিদ্ধহস্ত ছিলেন জার্মানির তারকা ফুটবলার মিরোস্লাভ ক্লোসা। তার পায়ের চেয়ে মাথা কথা বলতো বেশি। ২০১৬ সালে ফুটবল ক্যারিয়ারকে বিদায় জানান তিনি। এরপর একই বছরের নভেম্বরে জার্মান জাতীয় দলের সহকারি কোচ হিসেবে নতুন ক্যারিয়ার শুরু করেন ক্লোসা। এরপর ২০১৮ সালে ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের অনূর্ধ্ব-১৭ দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব নেন। তার কোচিং ক্যারিয়ার কখনোই জার্মানির বাইরে বিস্তৃত হয়নি। এবার তিনি পা রাখলেন দেশের বাইরে। অস্ট্রিয়ান বুন্ডেসলিগায় এসসিআর আলটাহ ক্লাবের প্রধান কোচের দায়িত্ব নিলেন জার্মানির ফুটবল ইতিহাসের সফলতম গোল স্কোরার।

২০১৮ থেকে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত বায়ার্ন অনূর্ধ্ব-১৭ দলের ডাগআউট সামলানোর পর বায়ার্নের মূল দলের কোচিং স্টাফে যুক্ত হন ক্লোসা। প্রধান কোচ হ্যান্সি ফ্লিকের সহকারীদের একজন হিসেবে এক বছরের চুক্তিতে কাজ করেন তিনি। এবার নতুন চ্যালেঞ্জ নিলেন এসসিআর আলটাহতে।

এসসিআর আলটাহ বুন্ডেসলিগায় গত মৌসুমে ১১তম এবং তার আগের মৌসুমে ছিল দশম অবস্থানে। এবার চলতি মৌসুম থেকে তলানির দিকের এই দলকে টেনে তোলার কাজ করতে হবে ক্লোসাকে। দায়িত্বটি নিতে মুখিয়ে আছেন উল্লেখ করে ৪৪ বছর বয়সী সাবেক স্ট্রাইকার বিবৃতিতে বলেন, শুরু থেকেই একটা ইতিবাচক অনুভূতি আমার ভেতরে খেলা করছে যে, মনে হচ্ছে আমি এখানে ঠিক জায়গাতেই এসেছি। সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে প্রথম আলোচনা এতটাই উন্মুক্ত ছিল যে, নিজের কাছে আমি পরিষ্কার হয়ে যাই যে এটাই করতে চাই।

২০০২ বিশ্বকাপের আসর দিয়ে শুরু। এরপর ২০০৬, ২০১০ বিশ্বকাপও খেলেছেন। প্রথম দুই বিশ্বকাপে তিনি করেন ৫ গোল, ২০১০ এ করেন ৪ গোল। ২০১৪ সালে শেষ বিশ্বকাপে তিনি ২ গোল করেন, যার শেষটি ছিল ব্রাজিলের বিপক্ষে সেমিফাইনালে। তাতেই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি রোনালদোর বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড পেছনে ফেলেন তিনি। এরপরই জাতীয় দলকে বিদায় বলেন। এর দুই বছর পর সব ধরনের ফুটবল থেকে অবসর নেন ক্লোসা।

জার্মানির হয়ে ১৩৭ ম্যাচে ৭১ গোল করে ক্লোসা দেশটির ইতিহাসের সফলতম গোলদাতা। ১৬ গোল করে বিশ্বকাপ ফুটবলের ইতিহাসেও সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ডও তার। ২০০৬ বিশ্বকাপে গোল্ডেন বুট, ২০০২ বিশ্বকাপে সিলভার বুট জিতেছেন। জার্মানির হয়ে জিতেছেন ২০১৪ বিশ্বকাপ। এছাড়াও ২০০২ বিশ্বকাপে রানার্সআপ ও ২০০৮ সালের ইউরোতেও রানার্সআপ হয়েছেন। ফুটবল বিশ্বকাপের ইতিহাসে একমাত্র ফুটবলার হিসেবে টানা চারটি আসরে সেমিফাইনাল খেলা একমাত্র ফুটবলার ছিলেন ক্লোসা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ