শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৩:১৩ অপরাহ্ন

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসকে ঘিরে গোয়েন্দা সংস্থা তৎপর রয়েছে: ডিএমপি কমিশনার

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : আগস্ট ১৪, ২০২১

জঙ্গিদের বিষয়ে সরকারের সব গোয়েন্দা সংস্থা তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, জঙ্গিদের অপতৎপরতা রুখে দিতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি যাতে কোনো ধরনের ঘটনা না ঘটে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।
আগামীকাল ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরের নিরাপত্তাব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার ।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, জঙ্গিরা সাইবার ওয়ার্ল্ডে কার্যক্রম পরিচালনার জন্য তৎপর রয়েছে। কিছু জঙ্গি সংস্থা সাইবার ওয়ার্ল্ড এর মাধ্যমে আফগানিস্তানে তালেবানদের হয়ে যুদ্ধ করার জন্য লোকজনদের আহ্বান জানাচ্ছে। তাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে কিছু লোক পায়ে হেটে বা সড়ক পথে আফগানিস্তান যাওয়ার চেষ্টাকালে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে গ্রেফতার হয়েছে। জঙ্গিদের বিভিন্ন কর্মতৎপরতা পর্যবেক্ষনে ডিএমপিসহ বাংলাদেশের সকল গোয়েন্দা সংস্থা নিরলসভাবে কাজ করছে।

ডিএমপি কমিশনার জানান, সাইবার ওয়ার্ল্ড এ জঙ্গীদের কর্মকান্ডের ওপর সাইবার পেট্রোলিং এর মাধ্যমে নজরদারী অব্যাহত রেখেছে ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

তিনি বলেন, গত পরশু জঙ্গি সংগঠনের লিডিং পর্যায়ের একজনকে গ্রেফতার করেছে সিটিটিসি। যিনি বোমা বিশেষজ্ঞ ও অনলাইনে বোমা বানানোর প্রশিক্ষণ দিতো। এই পুরো গ্যাংটাকে আমরা গ্রেফতার করতে পেরেছি।

তিনি বলেন, শোকদিবসের কর্মসূচি ঘিরে ধানমন্ডি ৩২ নম্বর এলাকায় প্রতিবারের মতোই যান চলাচল নিয়ন্ত্রণে থাকবে। যারা অনুষ্ঠানস্থলে আসবেন তাদেরকে পায়ে হেঁটে আসতে হবে। এখানে প্রবেশের আগেই প্রতিটি চেকপোস্টে প্রত্যেককে আর্চওয়ের মাধ্যমে তল্লাশি করা হবে। প্রধানমন্ত্রী যতক্ষণ এই ভেন্যুতে থাকবেন ততক্ষণ পুরো ভেন্যুটি জনশূন্য থাকবে।

শুধুমাত্র তার নিরাপত্তার দায়িত্বে সংশ্লিষ্টরা অবস্থান করবেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে প্রধানমন্ত্রীর ভেন্যু ত্যাগ করার কথা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সর্বসাধারণের পুষ্পস্তবক অর্পণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন,যারা আসবেন সু-শৃঙ্খলভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আসবেন। অনুষ্ঠানস্থলে মাস্ক ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেয়া হবে না।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, সবাইকে অনুরোধ করবো সেলফি তুলে সময় নষ্ট না করে যত দ্রুত সম্ভব শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ভেন্যু ত্যাগ করবেন।

এ সময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশনস্) কৃষ্ণ পদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) এ কে এম হাফিজ আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটিটিসি) মোঃ আসাদুজ্জামানসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ