সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৩৬ অপরাহ্ন

অবৈধভাবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমা উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত বিধি সম্মত না হওয়ায় অনুমোদন হয়নি

কালাম,আজাদ,ঢাকা্
আপডেট : জুলাই ৫, ২০২২

অবৈধভাবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমা উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত বিধি সম্মত না হওয়ায় অনুমোদন হয়নি
সম্পাদনায় রবিন চৌধুরী, ঢাকা
রাষ্ট্রপতির আদেশের পরিপন্থী ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের স্বার্থবিরোধী কোটায় পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমা উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত এবং পদোন্নতি আটকে দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। আজ মঙ্গলবার ০৫ জুলাই অর্থ বিভাগেরযুগ্ম সচিব (রাঃ প্রঃ-১) জনাব মোঃহাসানুল মতিন এর সভাপতিত্বে মিনিকনফারেন্স কক্ষে (কক্ষ নং-৫২০, ভবন নং-১১) সভায় মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশের পরিপন্থী এবংডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের স্বার্থবিরোধী কোটায় পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমাধারী উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত এবং পদোন্নতির অনুমোদন দেওয়ার বিষয়ে বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর গড়মিল পাওয়ায় তাদের আবেদন বাতিল করে বলা হয়েছে ভবিষৎতে এমন মিটিং করার আাগে সব ধরনের প্রশ্নের সঠিক নিয়ে আসতে হবে।আজকের সভায় সকল প্রশ্নের উত্তর যথাযথ না হওয়ায় পদোন্নতির আবেদন বিষয়টি বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।
জানা গেছে, চট্টগ্রাম বন্দর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির পক্ষে সদস্য সচিব নিউটন দাশ গতকাল ৪ জুলাই দুনীতি দমন কমিশনের লিখিত আবেদন করেন। শুধু তাই নয় নিউটন দাশ আজ ৫ জুলাই মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশের পরিপন্থী এবংডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের স্বার্থবিরোধী কোটায় পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমাধারী উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত বাতিল চেয়ে অর্থ মন্ত্রী ও সিনিয়র সচিব বরাবরে লিখিত আবেদন করে অনুলিপি দিয়ে দৃষ্টিআকর্ষণ করেন : ১: মো: হাসানুলমতিন, যুগ্নসচিব, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান-১, অর্থ মন্ত্রণালয়।২: জনাব আ ফ ম ফজলেরাব্বী, উপসচিব, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান-১, অর্থ মন্ত্রণালয়ের।

মূলত এ আবেদনের পর পরই ঘুরে যায় প্রেক্ষাপট। অর্থ মন্ত্রণালয়ও নড়ে চড়ে বসে। তারা আজকের বৈঠকে বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে দফায় দফায় নিয়োগ ও মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশের পরিপন্থী এবংডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের স্বার্থবিরোধী কোটায় পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমা উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীতকরার সিদ্ধান্তএবং পদোন্নতি নিয়ম বহির্ভূত ভাবে অনুমোদনের সিন্ধান্ত বিষয়ে প্রশ্ন করলে বন্দর কতৃপক্ষ সঠিক উত্তর দিতে না পারায় সভায় এ বিষয়ে পদোন্নতিপ্রাপ্ত নন-ডিপ্লোমা উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ১০ম গ্রেডে উন্নীতকরার সিদ্ধান্তএবং পদোন্নতিনিয়ম বহির্ভূত ভাবে অনুমোদনের সিন্ধান্ত বাতিল করা হয়।
সভায় মহামান্য রাষ্ট্রপতিরআদেশক্রমে ১৯/১১/১৯৯৪ইং তারিখের তৎকালীন সংস্থাপন মন্ত্রণালয়-এর প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে শুধুমাত্র ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিংসনদধারী উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের বেতন স্কেল ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়।এবিষয়ে তারা জানে কি না তাও জানতে চাওয়া হয় ?
তাছাড়া ০৭/০৯/১৯৯৫ইং তারিখে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে বাংলাদেশ গেজেট প্রকাশিত হয়। প্রজ্ঞাপনে, সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে তাদের অধীনস্থ অফিস সমূহে সংশ্লিষ্ট নিয়োগবিধিতে প্রয়োজনী সংশোধনী আনয়নের প্রক্রিয়া গ্রহণ করতে অনুরোধ করা হয় ।উল্লেখিত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী প্রবিধানমালা সংশোধন করা হলেও চট্টগ্রাম বন্দরে অদ্যাবধি তাহা পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নহয়নি। উপরন্তু, মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশকে পাশকাটিয়ে নন-ডিপ্লোমাধারীদের উপ-সহকারী প্রকৌশলী পদে বিভাগীয় পদোন্নতি ও ১১তম গ্রেড হতে ১০ম গ্রেডে উন্নীত করা হচ্ছে, যাহা প্রজ্ঞাপন বিরোধী এবং সাংঘর্ষিক। জানা গেছে, যেহেতু পদোন্নতি ও ১১তম গ্রেড হতে ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার বিষয়টি সভায় অনুমোদন করা হয়নি সেহেতু এটি নিয়ে কোন ধরণের প্রজ্ঞাপন জারী করবে না সংশ্লিষ্ট বিভাগ।
এবিষয়ে দৃষ্টিআকর্ষণ করা হলে মো: হাসানুলমতিন, যুগ্নসচিব, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান-১, অর্থ মন্ত্রণালয় এই প্রতিবেদককে বলেন, আমরা নিয়ম মেনে অনুমোদন দিবো। কোন কিছু অনিয়ম হলে আমরা অনুমোদন দিতে পারি না।
এদিকে এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার  বিকেল ৫টা ২৩ মিনিটে মুঠোফোনে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান-১, অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব  আ ফ ম ফজলেরাব্বী,, তিনি এই প্রতিবেদককে বলে, এই সভায় কার্যবিবরনীর কিংবা সিদ্ধান্ত প্রকাশ করার মত কিছু নাই। আমরা কিছু প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি ,কিছূ প্রশ্নের উত্তর পাইনি। তাই আপাতত এটি আমরা অনুমোদনের সিদ্ধান্ত হয়নি।

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ