বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৭ অপরাহ্ন

চকবাজারে আকর্ষনীয় বাহারী ইফতারীর বাজার

রিপোর্টারের নাম :
আপডেট : মার্চ ২৪, ২০২৩

পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে হরেক রকম ইফতার সামগ্রী নিয়ে দোকান সাজিয়েছেন পুরান ঢাকার দোকানিরা। এসব দোকানে ফালুদা, ফিরনি, লাবাং, মাঠা ও কলিজা ভুনাসহ মিলছে অজস্র ইফতার সামগ্রী। তবে সবকিছু ছাপিয়ে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় ৭৮ বছর আগে শুরু হওয়া ‘বড় বাপের পোলায় খায়’ এই বিশেষ খাবারের দোকান ঘিরে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এ খাবারের চাহিদা যেন বেড়েই চলছে।

শুক্রবার (২৪ মার্চ) চকবাজারের শাহী জামে মসজিদের সামনের ঐতিহ্যবাহী এ ইফতার বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

গত বছর ‘বড় বাপের পোলায় খায়’ ৬০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। তবে এ বছর তা ২০০ টাকা বেড়ে কেজি প্রতি ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

 

দোকানিরা বলছেন, ১২টি পদ যেমন- কোয়েলের মাংস ও কলিজা, খাসির কলিজা, মগজ ও দেশি মুরগির ডিম ও মশলার সংমিশ্রণে তৈরি হয় ‘বড় বাপের পোলায় খায়’৷ সর্বনিম্ন ১০০ টাকা থেকে শুরু করে বিক্রি হচ্ছে এই বিশেষ খাবার।

চকবাজারের শাহী জামে মসজিদের সামনে ‘বড় বাপের পোলায় খায়’ বিক্রেতা মাহমুদ হোসেন বলেন, গত বছর আমরা ৬০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছি; এ বছর দাম ৮০০ টাকা। সবকিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় এ খাবারের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে দাম বাড়লেও বিক্রি কমেনি বলেও জানান তিনি।

লালবাগ থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে আসা শরীফ বলেন, ‘বড় বাপের পোলায় খায়’ একটি মুখরোচক খাবার। আমার পরিবারে মা-বাবা ও ভাই-বোনসহ সবাই এই খাবারটি পছন্দ করেন। পরিবারের সবাই একসঙ্গে বসে ইফতার করার সময় এই খাবারটি রাখতেই হয়। গত বছর ৬০০ টাকা দিয়ে কিনলেও এ বছর দাম বেশি নিচ্ছে।

কেরানীগঞ্জ থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে আসা জুনাইদ আহমেদ বলেন, আমি কেরানীগঞ্জ থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে এসেছি। কিন্তু প্রতিটি আইটেম দাম অতিরিক্ত। ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও অনেক খাবার কিনতে পারছি না। যেভাবে সবকিছুর দাম বাড়ছে তাতে সামনে আরও সমস্যা হতে পারে। ১০০০ টাকা নিয়ে বাজারে এসেও তেমন কিছুই কিনতে পারিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ